Principal Message

Principal

        Professor A.S.M. Safiqullah

 

 Message:

I am delighted to know that Brahmanbaria Govt. Mohila College is going to launch a resourceful official website for its students, teachers and concerned authority and an easy access to information, learning resources and events. Both students and teachers can have opportunity to develop their thinking through exchange of valuable information.

I hope this website will certainly help to realize the vision of digital Bangladesh through enabling our students with appropriate skills and knowledge in ICT

I wish grand success of this unveiling program. Thanks to all concerned.

 

Professor A.S.M. Safiqullah
Principal
Brahmanbaria Govt. Mohila College
0851-58252, 01711378187
bgmcollege@gmail.com

 

কলেজের ইতিহাস:

নারীকে পুরুষের পাশাপাশি উন্নয়নের মূল স্রোত ধারায় নিয়ে আসতে শিক্ষা – সাংস্কৃতি সহ সকল কর্মকান্ডে নারীর অবাধ অংশ গ্রহন নিশ্চিত করতে হবে। এই নিরেট সত্যটি উপলব্ধি করতে পেরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কিছু সাদা মনের মানুষের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় জেলা সদরের হাসপাতাল রোড সংলগ্ন প্রায় ২ একর ৮০ শতাংশ ভূমির উপর ব্রাক্ষণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজটি অবস্থিত। ১৯৬৪সালে প্রতিষ্ঠিত এ কলেজটি অনেক চড়াই- উৎরাই পেরিয়ে প্রায় অর্ধ শতাব্দী বছর পার করেছে। সুদীর্ঘ এ সময়ে মহাবিদ্যালয়টি নানা পরিবর্তন, পরিবর্ধনের মধ্যদিয়ে ভৌত অবকাঠামো সহ সকল ক্ষেত্রে অনেক উৎকর্ষতা লাভ করেছে। জেলার একমাত্র মহিলা কলেজেটি জন্মলগ্ন থেকে প্রতিটি পদক্ষেপের সাথে ছড়িয়ে আছে নানা ইতিহাস।

১৯৬৩ সালের ৩১ শে অক্টোবর ব্রাক্ষণবাড়িয়া মহকুমার প্রশাসক হয়ে আসেন জনাব এম. এম নূর- উন- নবী চৌধুরী। মেয়েদেও উচ্চ শিক্ষা জন্য একটা স্বতন্ত্র কলেজ করার শুভাবুদ্ধি এলো তাঁর মাথায়। পরবর্তীতে শহরের গন্যমান্য সুধী বুদ্ধিজীবিদের সাথে টাউন হলে এক সভা আহবান করা হয়। ব্রাক্ষণবাড়িয়ার কর্মযোগী দানবীর, নিরলস সমাজসেবী স্বর্গীয় বাবু নিত্যানন্দ পাল (নিতাই পাল খ্যাতি) মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠার শুভ উদ্যোগ কে স্বাগত জানিয়ে কলেজ কান্ডে দশ হাজার টাকা দান করে নিজ দ্বায়িত্বে কলেজ প্রতিষ্ঠার শপথ নিয়ে কাজে  ঝাপিয়ে পড়েন। শুরু হলো পুরো উদ্যোমে কলেজ গড়ার কাজ। তৎকালীন মহকুমার হাসপাতালের সামনে প্রবীন আইজীবি গিরিজা প্রসন্ন দেবগুপ্ত ও মিসেস আসিয়া আজিজের বাড়ী দুটো দিনে নেয়া হল কলেজের জন্য।
১৯৬৪ সালের ১৬ই আগষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া কলেজের বাংলার অধ্যাপক বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক প্রয়াত মিন্নাত আলীকে অধ্যক্ষ নিয়োগ করে ১৯৬৪-৬৫ শিক্ষা বর্ষ হতে একাডেমিক কার্যক্রম শুরু করা হয়।
অর্গানাইজিং কমিটির পরামর্শক্রমে স্থানীয় মর্ডেল গার্লস হাই স্কুলে মর্নিং শিফটের মাধ্যমে পাঁচ জন খন্ডকালীন শিক্ষক দ্বারা বিশ জন ছাত্রী নিয়ে ক্লাস শুরু হয়। ১৯৬৫ সালের ২৯ জুন ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহিলা কলেজের নিজস্ব ক্যাম্পাসের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন তৎকালীন মহকুমা প্রশাসক জনাব এম. আহমেদ। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আরেকজন নিবেদিতপ্রাণ সমাজ কর্মী গাজিউর রহমান কে নিয়ে নিতাই পাল পরিচালনা করেন মেয়েদের আবাসিক ব্যবস্থায় শিক্ষাগ্রহনের উদ্যোগ।
আাজকের আসিয়া হোস্টেলের জড়িয়ে আর একটি মহৎলোকের কাহিনী। জনাব মোঃ আবদুল্লাহ (মগীর) তাঁর নিজের নাম গোপন করে বোন আসিয়ার নামে একটি ছাত্রীনিবাস প্রতিষ্ঠাকালে বিশ হাজার টাকা দান করেন। এভাবে কলেজটি যখন স্বয়ং সম্পূর্ণ একটি কলেজ রূপে প্রতিষ্ঠিত হয় তখন এর অন্যতম উদ্যোক্তা, কর্মবীর নিতাই পাল ১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭০ সালে ইহলোক করেন।

স্বাধীনতা যুদ্ধের পরে নতুন উদ্যোমে ১৯৭২-৭৩ সেশন হতে বিজ্ঞান বিভাগ চালু হয়। অধ্যক্ষ মিন্নাত আলীর তত্ত্বাবধানে শিক্ষকদের নিরলস প্রচেষ্ঠার উচ্চ মাধ্যমিক ও বি, এ পরীক্ষার ফলাফল, শিল্প সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চায় দেশজোড়া সুনাম জুড়িয়ে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে। এরই ফলশ্রুতিতে কলেজটি সরকারের পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় অর্ন্তভূক্ত হয়।
পরবর্তীতে ১৯৮৪ সালের ১ নভেম্বর কলেজটিকে সরকারিকরণ করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Brahmanbaria Govt. Mohila College © 2019 শিক্ষা বাতায়ন